সিরাজদিখানে ভাতিজার ছুরির আঘাতে গুরুতর আহত চাচা, থানায় অভিযোগ

0

জমি সংক্রান্ত বিরোধে

সিরাজদিখান (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ মুন্সীগঞ্জ সিরাজদিখানে জমি সংক্রান্ত বিরোধে ভাতিজার ছুরির আঘাতে চাচা গুরুতর আহত হয়েছে। সিরাজদিান রশুনিযা ইউনিয়নে আলম শেখ (৫৮) নামের এক ব্যত্তিকে ছুরি দিয়ে পেটের ভুড়ি বের করে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে তার ভাতিজার বিরুদ্ধে। গত বুধবার রাত সারে ১১টায় পূর্ব শত্রুতার জেরে এ হামলা করা হয়েছে বলে জানা গেছে। হামলাকারী আলম শেখের পেটে ও বুকে ধারালো ছুরি দিয়ে আঘাত করে গুরুতর জখম করে। এ সময় আলম শেখে তার দোকানে একা বসা ছিলেন ।

স্থানীয়রা আলম শেখকে প্রথমে সিরাজদিখান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় রাতেই তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। আহত আলম শেখ সিরাজদিখান উপজেলার রশুনিয়া ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের মৃত রাজ্জাক শেখের ছেলে। রাতে ওই ইউনিয়নের উত্তর তাজপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কাছে এ ঘটনা ঘটে।

আহত আলম শেখের দ্বিতীয় ছেলে মোঃ সাদ্দাম হোেসন জানান, রাতে দোকানে সিগারেট কিনতে আসে চঞ্চল শেখ (৩৩), বাবুল শেখ(৬০) ,আফসার(২৫) ওই সময় দোকানের কিছু অংশ রাতে বন্ধ থাকায় আমার বাবা দোকানের পকেট দরজা দিয়ে বের হলে সেখানে আগে থেকেই প্রস্তুত থাকা চঞ্চল তাঁর ওপর ধারালো ছুরি নিয়ে হামলা চালায়। এসময় চঞ্চল আমার বাবাকে হত্যার উদ্দেশ্যে ছুরি দিয়ে পেটে আঘাত করে পেটের ভুড়ি বের করে ফেলে।

আমার বাবকে প্রথমে সিরাজদিখান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে অবস্থা গুরুতর হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে পাঠায়। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। পাশের বাড়ির আব্দুল কাদের ও আব্দুল মালেক শেখ অভিযোগ করে বলেন, শেখ বাবুল ও তার ছেলে চঞ্চল দুজনেই বাড়ি ও জমির জায়গা নিয়ে বিভিন্ন সময় আজেবাজে কথা বলতো এতে আলম শেখ কোন কথা বলতেন না। আলম শেখ আগামী ৯ তারিখে ওদের সাথে বাড়ি মাপ ঝোপের বিষয়ে আমাদরকে জানিয়ে বাড়ির মাপের দিন আমাদের থাকতে বলে ছিলেন। বাড়ি মাপের জন্য ক্ষিপ্ত হয়ে বাবুল শেখ তার ছেলে চঞ্চলকে দিয়ে এ হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে বলে দাবি করেন তারা। ওরা আলম শেখকে মেরে ফেলতে চেয়েছিল।

সিরাজদিখান থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) মোঃ মুজাহিদুল ইসলাম সুমন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, হামলায় ব্যবহৃত ধারালো ছুরি পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে আহত আলম শেখের পরিবারের পক্ষ থেকে বৃহস্পতিবার রাতে লিখিত অভিযোগ করেছেন বলেও জানান তিনি। তবে কি কারনে এ হামলার ঘটানো হয়েছে তা তদন্ত করে দেখতে হবে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।