৩৮তম স্প্যানে ৫.৭ কি.মি দৃশ্যমান পদ্মাসেতুর

0
13

মুন্সীগঞ্জ: সংযুক্ত হয়ে গেছে পদ্মাসেতুর তীর ও নদী। সেতুতে ৩৮তম স্প্যানটি বসানো মধ্য দিয়ে সেতুর জটিলতম কাজগুলোর একটি সম্পন্ন করা হলো। সেতু এখন দৃশ্যমান হয়েছে ৫ কিলোমিটার ৭০০ মিটার পর‌্যন্ত। আর মাত্র তিনটি স্প্যান বসানো বাকি। সে তিনটি বসানো হলে ৬.১৫ কি.মি দীর্ঘ সেতু পূর্ণাঙ্গ কাঠামো পাবে।

আজ শনিবার (২১ নভেম্বর) পদ্মাসেতুর ১ ও ২ নম্বর পিআরের উপর ৩৮তম স্প্যানটি বসানো হয়। সকাল ১০টার দিকে প্রক্রিয়া শুরু করে দুপুর আড়াইটা নাগাদ স্প্যানটি বসানো সম্ভব হয়।

শনিবার সকাল থেকেই কর্মযজ্ঞ শুরু হয়। তবে এর আগে থেকেই নদীর একেবারে তীর ঘেঁষে যাতে স্প্যানবাহী ক্রেন পৌঁছাতে পারে সে জন্য ড্রেজিং করা হয়।

সেতু প্রকৌশলীরা জানান এই স্প্যানটির ব্যাপারে তাদের নিতে হয়েছে বাড়তি প্রস্তুতি ও বাড়তি সতর্কতা। সেতুর এটিই প্রথম স্প্যান। এর উপর দিয়েই যে কোনো ভারি যানবাহন এমনকি ট্রেনও উঠবে সেতুতে। তারা জানান পদ্মাসেতুর প্রতিটি স্প্যানের ডিজাইনই একটির থেকে অপরটি ভিন্ন। তবে ১ ও ২ নম্বর খুঁটির উপর বসতে যাওয়া স্প্যানটির ভিন্নতা অনেক বেশি। এ স্প্যানটির যন্ত্রাংশ চীন থেকে তৈরি হয়ে এসেছে অনেক পরে। অন্য পিয়ারগুলোতে ৬ থেকে ৭টি পাইল ব্যবহার করা হলেও শক্তিশালী এ পিয়ারটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ১৬টি পাইল।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY