সরকারি কর্মচারীদের ভ্রমণ ব্যয়ের অর্ধেক স্থগিত

0
67

নিউজ ডেস্ক: সরকারি কর্মচারীদের ভ্রমণ ব্যয়ের জন্য বাজেটে যে বরাদ্দ রাখা হয়েছে, তার অর্ধেক; অর্থাৎ ৫০ শতাংশ স্থগিত থাকবে। অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগ আজ রোববার এ বিষয়ে একটি পরিপত্র জারি করেছে। সীমিত সম্পদের সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করতে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কারণ, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব মোকাবিলায় সরকার অগ্রাধিকার খাতে প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ দেবে। পরিপত্রে এ কথাও বলা হয়েছে।

পরিপত্রে বলা হয়েছে, সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের জন্য এ সিদ্ধান্ত প্রযোজ্য। তাই সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানের সব ধরনের রুটিন ভ্রমণ পরিহার করতেও বলা হয়েছে।

চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরে পরিচালন ও উন্নয়ন বাজেটে ‘ভ্রমণ ও বদলি’ বাবদ ২ হাজার ২৪১ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। অর্থ বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, এ পরিপত্র কার্যকরের মাধ্যমে সরকার অন্তত এক হাজার কোটি টাকা সাশ্রয় করতে চায়।

অর্থ বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, ২০১৯-২০ অর্থবছরে ভ্রমণ ও বদলি বাবদ ২ হাজার ২১৩ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছিল। গত ২৭ মার্চ থেকে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসের কারণে সরকারি কর্মচারীরা খুব একটা ভ্রমণ করতে পারেননি। তারপরও বিদায়ী অর্থবছরে সংশোধিত বাজেটে ব্যয় বাড়িয়ে ধরা হয়েছে ২ হাজার ২৪৮ কোটি টাকা।

অর্থ বিভাগের দায়িত্বশীল কর্মচারীরা জানান, করোনাভাইরাসের কারণে অনেকে ভ্রমণ করতে চাইবেন না। বিদেশের ক্ষেত্রে আবার ভিসাও পাবেন না অনেকে। ভ্রমণের জন্য, এমনকি উড়োজাহাজের টিকিট এখন পর্যন্ত চাইলেই পাওয়া যাচ্ছে না। ফলে স্বাভাবিকভাবেই এ বছর ব্যয় কম হবে। তারপরও অর্থ বিভাগ একটি পরিপত্র জারি করে রাখল, যাতে অপ্রয়োজনীয় ভ্রমণলিপ্সুরা একটু সতর্ক হন।

অর্থ বিভাগ কয়েক দিন আগে আলাদা এক পরিপত্রে আগামী ডিসেম্বর পর্যন্ত সব ধরনের গাড়ি কেনার কার্যক্রমও স্থগিত রাখে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY